এবিসি বার্তা

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

রিয়াদকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দায় এড়ানোর চেষ্টা করা হবে : মাশরাফী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করেছে বাংলাদেশ। আগের আসরগুলোর ন্যায় এবারও মূলপর্বে কোনো ম্যাচ জয়লাভ করতে পারেনি টাইগাররা। যদিও ক্রিকেটারদের কাছ থেকে প্রত্যাশা ছিল আকাশচুম্বী। তবে এমন হারের দায় এড়াতে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দায় এড়ানোর চেষ্টা করা হবে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

পুরো বিশ্বকাপে দলের পারফরম্যান্স নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছে মাশরাফী। সেখানে ক্রিকেটারদের দায় এড়ানোর সুযোগ নেই জানিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘আরও একটি বিশ্বকাপ শেষ হলো। ৮ ম্যাচ খেলেছি, ২টি জয়, ৬টি হার… প্রথমেই বলে নেই, ক্রিকেটারদের দায় কোনোভাবেই এড়ানোর উপায় নেই। বিশেষ করে, যেভাবে আমরা হেরেছি। এত বাজে খেলার পর ক্রিকেটারদের পাশে দাঁড়ানো কঠিন। তবে, আমার অনুভূতি তো আমার মতো করেই। আমি বিশ্বাস করি, ওরা হয়তো খুব দ্রুত ঘুরে দাঁড়াবে ইনশাল্লাহ।’

তার মতে, ঠিক এই মুহূর্তে ক্রিকেটারদের উচিত ধৈর্য্য ধরা ও সঠিক প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকা। কোনো সমালোচনার জবাব দেওয়া উচিত নয়। আশা করি, তারা বিষয়টি উপলব্ধি করতে পারবে এবং সঠিক কাজটি করবে।

তবে কিছু ব্যাপার মেলানো প্রয়োজন। সেটা হলো, খারাপ হওয়ার প্রথম দায় অবশ্যই ক্রিকেটারদের। এরপর আর কি কারও দায় নেই? শুধু ক্রিকেটারদের ঘাড়ে চাপিয়ে যদি শেষ করেন, তাহলে মনে রাখবেন, আরও খারাপ সময় অপেক্ষা করছে। প্রমাণ তো আগেও অহরহ দেখা গেছে!

আগের অভিজ্ঞতা থেকে এবারও বলে দেওয়া যায়, এখন সামনে কী হবে। হয়তো কাউকে বাদ দেওয়া হবে, কারও ওপর অদৃশ্য রাগ ঝাড়া হবে, রিয়াদকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দায় এড়ানোর চেষ্টা করা হবে। সমর্থকরা যে ক্রিকেটারকে পছন্দ করছে না, তার ওপর ঝাল মিটিয়ে সমর্থকদের শান্ত করা হবে। সাংবাদিক ভাইদের নানা কিছু বোঝানোর চেষ্টা করা হবে।

আগেও দেখেছি যে, এসব করে একেকটা পক্ষ দাঁড় করানো হয় এবং বোঝানোর চেষ্টা করা হয় যে, সামনের বিশ্বকাপে সব ঠিক হয়ে যাবে। আমরাও ভাই আবেগি মানুষ, এসব দেখে সব ভুলে আশা নিয়ে সামনে তাকিয়ে থাকব। এরপর বিশ্বকাপ আসবে, দেখা যাবে একই ফলের পুনরাবৃত্তি!

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email